ঢাকা ০৮:৩৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রংপুরে এক প্রেমিকের হাতে অপর প্রেমিক খুন গ্রেপ্তার ২

রিয়াজুল হক সাগর, রংপুর : রংপুরে পরকীয়া প্রেমের জেরে সাদ্দাম হত্যকান্ডের ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরা হলো, নগরীর হাজীরহাট রনচন্ডী এলাকার তমিজ উদ্দিনের স্ত্রী শাহের বানু ওরফে শাহনাজ (৩০) ও একই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৬)। শুক্রবার (২৮ জুন) তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিকেলে নগরীর সেন্ট্রাল রোডস্থ মেট্রোপলিটন পুলিশ কার্যালয়ে উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন জানান, স্বামী বয়স্ক হওয়ায় শারীরিক চাহিদা পূরণ না পারায় প্রতিবেশী নাতি মঞ্জুরুল ইসলামের সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে শাহনাজ। বছরখানেক আগে প্রতিবেশী সাদ্দাম হোসেনের সাথেও শাহনাজ পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। তিনি সাদ্দামকে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এরই এক পর্যায়ে শাহনাজ বিষয়টি মঞ্জুরুলকে জানায় এবং যে কোন মূল্যে তাকে পথ থেকে সরিয়ে দিতে বলে। ২৬ জুন রাতে রাত ২টার দিকে ঘর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় শাহনাজের বাড়ির উঠানে সাদ্দামকে দেখতে পায় মঞ্জুরুল। বাড়ির লোকদের কাছে ধরা পড়ার ভয়ে তারা সেখান থেকে বেরিয়ে মাঠের দিকে যেতে থাকে। সাদ্দাম পেছন থেকে হাসুয়া নিয়ে মঞ্জুরুলকে সামনে রেখে এগিয়ে যেতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে সাদ্দাম কাদায় পা পিছলে পড়ে যায়। সুযোগ বুঝে সাথে থাকা দা দিয়ে সাদ্দামকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে মঞ্জুরুল এবং হত্যাকান্ডের পর তা শাহনাজকে জানায়।
উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন বলেন, শাহনাজের স্বামীর বয়স প্রায় ৭৫ বছর এবং তার স্বামী ছেলেকে নিয়ে আলাদা ঘরে থাকতো। একাই একটি ঘরে থাকায় সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েছিল শাহনাজ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি তারা সেখানেও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে পিকনিকের ট্রলারে সন্ত্রাসীদের হামলা, জীবন বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপিয়ে দিয়ে যুবকের মৃত্যু

রংপুরে এক প্রেমিকের হাতে অপর প্রেমিক খুন গ্রেপ্তার ২

Update Time : ১১:২১:৪৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুন ২০২৪

রিয়াজুল হক সাগর, রংপুর : রংপুরে পরকীয়া প্রেমের জেরে সাদ্দাম হত্যকান্ডের ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরা হলো, নগরীর হাজীরহাট রনচন্ডী এলাকার তমিজ উদ্দিনের স্ত্রী শাহের বানু ওরফে শাহনাজ (৩০) ও একই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৬)। শুক্রবার (২৮ জুন) তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিকেলে নগরীর সেন্ট্রাল রোডস্থ মেট্রোপলিটন পুলিশ কার্যালয়ে উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন জানান, স্বামী বয়স্ক হওয়ায় শারীরিক চাহিদা পূরণ না পারায় প্রতিবেশী নাতি মঞ্জুরুল ইসলামের সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে শাহনাজ। বছরখানেক আগে প্রতিবেশী সাদ্দাম হোসেনের সাথেও শাহনাজ পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। তিনি সাদ্দামকে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এরই এক পর্যায়ে শাহনাজ বিষয়টি মঞ্জুরুলকে জানায় এবং যে কোন মূল্যে তাকে পথ থেকে সরিয়ে দিতে বলে। ২৬ জুন রাতে রাত ২টার দিকে ঘর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় শাহনাজের বাড়ির উঠানে সাদ্দামকে দেখতে পায় মঞ্জুরুল। বাড়ির লোকদের কাছে ধরা পড়ার ভয়ে তারা সেখান থেকে বেরিয়ে মাঠের দিকে যেতে থাকে। সাদ্দাম পেছন থেকে হাসুয়া নিয়ে মঞ্জুরুলকে সামনে রেখে এগিয়ে যেতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে সাদ্দাম কাদায় পা পিছলে পড়ে যায়। সুযোগ বুঝে সাথে থাকা দা দিয়ে সাদ্দামকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে মঞ্জুরুল এবং হত্যাকান্ডের পর তা শাহনাজকে জানায়।
উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন বলেন, শাহনাজের স্বামীর বয়স প্রায় ৭৫ বছর এবং তার স্বামী ছেলেকে নিয়ে আলাদা ঘরে থাকতো। একাই একটি ঘরে থাকায় সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েছিল শাহনাজ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি তারা সেখানেও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেবে।