ঢাকা ০৯:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভোলায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি

আমির হামজা, ভোলা : পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এক ও অভিন্ন সার্ভিস কোড প্রদান এবং সকল অনিয়মিত কর্মচারীদের নিয়মিত করণের দাবিতে অনিদিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছে ভোলা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

বুধবার (৩ জুলাই) ভোলা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রধান কার্যালয় বাংলাবাজার অফিসে অবস্থান করেন তারা। এ সময় প্রচণ্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে অফিস চত্বরে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন পোস্টার, লিফলেট ও প্লে-কার্ড নিয়ে দাবী আদায়ের লক্ষ্যে কর্মবিরতি পালন করেন তারা। বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত চলে এ কর্মসূচী।

এ সময় আন্দোলনকারীরা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচী চলবে।

কর্ম বিরতিতে বক্তব্য রাখেন, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম মো. মমিনুল হক, সহকারী জুনিয়র প্রকৌশলী মো. রাজিব, প্রীতি রানী দেবনাথ, সাথী ও সালমা আক্তার। এছাড়া লাইন শ্রমিকদের মধ্যে ফরিদ আরাফাত ও ইমরান হোসেন।

বক্তারা বলেন, একই কাজ করেও ন্যায্য অধিকার বঞ্চিত রাখা হয়েছে কর্মকর্তা, কর্মচারীদের। বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের কাছে দাবি বৈষম্য দূর করে ন্যায্য অধিকার পাওয়ার। অন্যথায় এ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গড়ে ১৫-২০ ঘন্টা কাজ করেন শ্রমিক কর্মকর্তারা। কিন্তু তারপরেও বঞ্চিত রাখা হয়েছে। এমন বৈষম্য নিরসন জরুরি। এ আন্দোলন করতে গিয়ে দুজন এজিএম শোকজ খেয়েছেন।

এদিকে আন্দোলনকালে বিদ্যুতের সকল জরুরি সেবা সচল ছিল। এতে ভোগান্তি পোহাতে হয়নি গ্রাহকদের। আন্দোলনে জেলার ৫১৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারি অংশগ্রহণ করেন। এরআগে ১ জুলাই একই দাবীতে স্মারকলিপি প্রদান করেন আন্দোলনকারীরা।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে পিকনিকের ট্রলারে সন্ত্রাসীদের হামলা, জীবন বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপিয়ে দিয়ে যুবকের মৃত্যু

ভোলায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি

Update Time : ১২:৫১:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

আমির হামজা, ভোলা : পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এক ও অভিন্ন সার্ভিস কোড প্রদান এবং সকল অনিয়মিত কর্মচারীদের নিয়মিত করণের দাবিতে অনিদিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছে ভোলা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

বুধবার (৩ জুলাই) ভোলা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রধান কার্যালয় বাংলাবাজার অফিসে অবস্থান করেন তারা। এ সময় প্রচণ্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে অফিস চত্বরে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন পোস্টার, লিফলেট ও প্লে-কার্ড নিয়ে দাবী আদায়ের লক্ষ্যে কর্মবিরতি পালন করেন তারা। বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত চলে এ কর্মসূচী।

এ সময় আন্দোলনকারীরা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচী চলবে।

কর্ম বিরতিতে বক্তব্য রাখেন, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম মো. মমিনুল হক, সহকারী জুনিয়র প্রকৌশলী মো. রাজিব, প্রীতি রানী দেবনাথ, সাথী ও সালমা আক্তার। এছাড়া লাইন শ্রমিকদের মধ্যে ফরিদ আরাফাত ও ইমরান হোসেন।

বক্তারা বলেন, একই কাজ করেও ন্যায্য অধিকার বঞ্চিত রাখা হয়েছে কর্মকর্তা, কর্মচারীদের। বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের কাছে দাবি বৈষম্য দূর করে ন্যায্য অধিকার পাওয়ার। অন্যথায় এ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গড়ে ১৫-২০ ঘন্টা কাজ করেন শ্রমিক কর্মকর্তারা। কিন্তু তারপরেও বঞ্চিত রাখা হয়েছে। এমন বৈষম্য নিরসন জরুরি। এ আন্দোলন করতে গিয়ে দুজন এজিএম শোকজ খেয়েছেন।

এদিকে আন্দোলনকালে বিদ্যুতের সকল জরুরি সেবা সচল ছিল। এতে ভোগান্তি পোহাতে হয়নি গ্রাহকদের। আন্দোলনে জেলার ৫১৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারি অংশগ্রহণ করেন। এরআগে ১ জুলাই একই দাবীতে স্মারকলিপি প্রদান করেন আন্দোলনকারীরা।