ঢাকা ১০:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রংপুরের মিঠাপুকুরে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে মা-ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু

রিযাজুল হক সাগর, রংপুর : রংপুরের মিঠাপুকুরে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে মা-ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টার দিকে উপজেলার উদয়পুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিঠাপুকুর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ। নিহতরা হলেন- ওই গ্রামের বাদশা মিয়ার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম, তাদের ছেলে হুদা মিয়া এবং তবারক হোসেনের ছেলে ইবলুল মিয়া।স্থানীয়রা জানান, সকালে কচু শাক তুলতে গিয়ে পা পিছলে নির্মাণাধীন সেফটিক ট্যাংকে পড়ে যান দেলোয়ারা বেগম। দেখতে পেয়ে নিচে নামেন ছেলে হুদা মিয়া ও ইবলুল মিয়া। পরে ট্যাংকে জমে থানা গ্যাসের কারণে তিনজনই মারা যান। খবর পেয়ে মিঠাপুকুর থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ তিনটি উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। মিঠাপুকুর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, এ ঘটনায় নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি। অসাবধানতার কারণে ঘটনা ঘটেছে। এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গ্রামের লোকজন ছাড়াও আশপাশের গ্রামের লোকজন এমন খবরে গ্রামটিতে ছুটে গিয়ে নিহতের স্বজনদের সান্ত্বনা দিচ্ছেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে পিকনিকের ট্রলারে সন্ত্রাসীদের হামলা, জীবন বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপিয়ে দিয়ে যুবকের মৃত্যু

রংপুরের মিঠাপুকুরে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে মা-ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু

Update Time : ০৬:২৯:২২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

রিযাজুল হক সাগর, রংপুর : রংপুরের মিঠাপুকুরে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে মা-ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টার দিকে উপজেলার উদয়পুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিঠাপুকুর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ। নিহতরা হলেন- ওই গ্রামের বাদশা মিয়ার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম, তাদের ছেলে হুদা মিয়া এবং তবারক হোসেনের ছেলে ইবলুল মিয়া।স্থানীয়রা জানান, সকালে কচু শাক তুলতে গিয়ে পা পিছলে নির্মাণাধীন সেফটিক ট্যাংকে পড়ে যান দেলোয়ারা বেগম। দেখতে পেয়ে নিচে নামেন ছেলে হুদা মিয়া ও ইবলুল মিয়া। পরে ট্যাংকে জমে থানা গ্যাসের কারণে তিনজনই মারা যান। খবর পেয়ে মিঠাপুকুর থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ তিনটি উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। মিঠাপুকুর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, এ ঘটনায় নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি। অসাবধানতার কারণে ঘটনা ঘটেছে। এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গ্রামের লোকজন ছাড়াও আশপাশের গ্রামের লোকজন এমন খবরে গ্রামটিতে ছুটে গিয়ে নিহতের স্বজনদের সান্ত্বনা দিচ্ছেন।